কওমী শিক্ষা কমিশনের প্রথম বৈঠক সম্পন্ন

আজ০৪-০৬-২০১২ রোজ সোমবার বাঙলাদেশ কওমী মাদরাসার সনদের স্বীকৃতির জন্য বর্তমান সরকার কর্তৃক গঠিত কওমী শিক্ষা কমিশন এর সর্ব প্রথম বৈঠক কমিশনের হাজি ক্যাম্পস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিশনের চেয়ারম্যান আল্লামা আহমদ শফী সাহেব। বৈঠকে কমিশনের সকল সদস্য উপস্থিত হতে না পারলেও দুই তৃতীয়াঙশ সদস্য উপস্থিত হয়েছেন বলে সূত্র জানিয়েছে। কমিশনের কু চেয়ারম্যান মাওলানা ফরীদুদ্দীন মসউদ, সদস্যসচিব মাওলানা রূহুল আমীন, সদস্য আল্লামা সুলতান যাওক নদভী, সদস্য আল্লামা আব্দুল হালীম বোখারী, সদস্য আল্লামা আশরাফ আলী, সদস্য মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, সদস্য মাওলানা আব্দুল জব্বার, সদস্য মাওলানা মুফতী এনামুল হক্ব কাসেমী, সদস্য মাওলানা আব্দুল হক্ব হক্কানী, সদস্য মাওলানা মাহফূজ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

কওমী কমিশন গঠিত হওয়ার পর বিভিন্ন স্থানে বহু গুজব ছড়িয়ে পড়ে। কারো কারো পক্ষ থেকে শোনা যেত কমীশনের সদস্যদেরকে সরকার খুব টাকা পয়সা এবঙ বাড়ী গাড়ী দিবে। অনেকে হয়ত ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এসব গুজব ছড়িয়েছিল। এ কারণে কমিশন সদস্যগণ সর্বসম্মতিক্রমে একটি দু:সাহসিক প্রস্তাব পাশ করেন। স্পষ্টভাবে কমিশন সদস্যগণ সরকারের কোন প্রকার সহযোগিতা নেবেনা এবঙ স্বয়ঙ কমিশনের নামেও সরকারের কোন সহযোগিত নিতে পারবেনা সর্বসম্মত এই প্রস্তাব পাশ হয়। এমনকি সরকার কর্তৃক দেওয়া হাজী ক্যাম্পের অফিস ঘর ব্যবহার করবে না প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়। কমিশনের কাজ পরিচালনার জন্য আপাতত উত্তরায় একটি ফ্লাট নির্ধারণ করেন। কমিশনের সদস্যগণ একযোগে একথার সম্মতি জ্ঞাপন করেন যে, আমরা একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি এবঙ কওমী মাদরাসার ছাত্রদের ভবিষ্যত চিন্তা করে আন্তরিকভাবে কাজ করছি। এখানে কারো কোন দুনিয়াবী বা পার্থিব স্বাথ নেই।

মূলত যে মানুষই সেরূপ আন্তরিক হবে তাদের হাতে আল্লাহর সঠিক দ্বীন অটুট থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

কমিশনের বৈঠকে অতি সম্প্রতি কওমী নেসাব সম্পর্কে একটি সুপারিশ তৈরী করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কওমী নেসাবের সুপারিশ তৈরীর জন্য একটি কমিটিো গঠন করা হয়। এই কমিটির মধ্যে আল্লামা সুলতান যওক নদভী, মাওলানা ফরীদুদ্দীন মসউদ, মাওলানা আব্দুল বাসিত বরকতপুরি আল্লামা আশরাফ আলী, মাওলানা রূহুল আমীন প্রমূখ রয়েছন। তাদেরা একমাসের মধ্যে এই সুপারিশমালা তৈরী করে কমিশনের পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপন করার কথা রয়েছে।  পরে কমিশন উক্ত সপারিশ দেশের সকল বোর্ড, বড় বড় দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবঙ র্শীর্ষ ওলামায়ে কেরামের নিকট প্রেরণ করবেন বলেও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়াও কমিশনের সদস্য বৃদ্ধি করা ইত্যাদি প্রস্তাব নিয়েও আলোচনা হয় এবঙ আগামী বৈঠকের এজেন্ডাতে এসকল প্রস্তাব স্থান দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় বলেও কমিশন সূত্রে জানা গেছে।

কমিশনের এই বৈঠক দশটায় আম্ভ হয় প্রায় ১টা পর্যন্ত দীর্ঘায়িত হয়। বৈঠকে খুব সুষ্ঠু পরিবেশ এবঙ আন্তরিকতার সাথেই আলোচনা হয়েছে বলে কেউ কেউ মত পোষণ করেছেন।

আল্লামা আহমদ শফী সাহেব দুআর মাধ্যমে বৈঠকের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

মূলত উলামায়ে কেরাম যদি প্রত্যেকটি বৈঠকে এরূপ আন্তরিক হয়ে করেন তাহলে নিশ্চয় কওমী মাদারাসা ছাত্রদের ভাগ্য সুপ্রসন্ন। নিশ্চয়্ই একদিন না একদিন কওমী সনদের স্বীকৃতি হবেই।

One thought on “কওমী শিক্ষা কমিশনের প্রথম বৈঠক সম্পন্ন

  1. mir shawkat khalil says:

    ALLAH ai kazti ke shoje bastobayon korok, a….meeeeeen.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s